হাদীস শরিফে বর্নিত মালউন হিন্দুদের ধ্বংসকারী গাযওয়াতুল হিন্দ(হিন্দুদের সাথে জিহাদ) ।

 

 

jihad 2.jpgসারা পৃথিবীতে সবচে’ বড় জিহাদ হবে হিন্দুস্তান তথা ভারতের মুশরিকদের সাথে। এই জিহাদের গুরুত্ব হাদীছ শরীফে
ইরশাদ হয়েছে,-
ﻋَﻦْ ﺣَﻀْﺮَﺕْ ﺃَﺑِﻰْ ﻫُﺮَﻳْﺮَﺓَ ﺭَﺿِﻰَ
ﺍﻟﻠﻪُ ﺗَﻌَﺎﻟٰﯽ ﻋَﻨْﻪُ ﻗَﺎﻝَ ﻭَﻋَﺪَﻧَﺎ
ﺭَﺳُﻮْﻝُ ﺍﻟﻠﻪِ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ
ﻭَﺳَﻠَّﻢَ ﻏَﺰْﻭَﺓَ ﺍﻟْﻬِﻨْﺪِ ﻓَﺈِﻥِ
ﺍﺳْﺘُﺸْﻬِﺪْﺕُ ﻛُﻨْﺖُ ﻣِﻦْ ﺧَﻴْﺮِ
ﺍﻟﺸُّﻬَﺪَﺍﺀِ ﻭَﺇِﻥْ ﺭَﺟَﻌْﺖُ ﻓَﺄَﻧَﺎ
ﺣَﻀْﺮَﺕْ ﺃَﺑُﻮْ ﻫُﺮَﻳْﺮَﺓَ ﺭَﺿِﻰَ ﺍﻟﻠﻪُ
ﺗَﻌَﺎﻟٰﯽ ﻋَﻨْﻪُ ﺍﻟْﻤُﺤَﺮَّﺭُ
অর্থ: “হযরত আবূ হুরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু বলেন, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি আমাদের থেকে হিন্দুস্তান তথা ভারতের জিহাদ সম্পর্কে ওয়াদা তথা প্রতিশ্রুতি গ্রহণ করেন। যদি আমি সেই সম্মানিত জিহাদে উপস্থিত হই এবং শাহাদাত গ্রহণ করি তাহলে আমি হবো সর্বশ্রেষ্ঠ শহীদ। আর আমি যদি সম্মানিত জিহাদ থেকে ফিরে আসি (বিজয়ী বেশে) তাহলে আমি হযরত আবূ হুরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্ত।”
সুবহানাল্লাহ!

দলীল-
√ মুসনাদে আহমদ ২/২২৮,
√ মুস্তাদরকে হাকিম ৩/৫১৪,
√হিলইয়াতুল আওলিয়া ৮/৩১৬

হাদীস শরীফে অন্য বর্ণনায় এসেছে-
ﻋَﻦْ ﺣَﻀْﺮَﺕْ ﺃَﺑِﻰْ ﻫُﺮَﻳْﺮَﺓَ ﺭَﺿِﻰَ
ﺍﻟﻠﻪُ ﺗَﻌَﺎﻟٰﯽ ﻋَﻨْﻪُ ﻗَﺎﻝَ ﻭَﻋَﺪَﻧَﺎ
ﺭَﺳُﻮْﻝُ ﺍﻟﻠﻪِ ﺻَﻠَّﻰ ﺍﻟﻠﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ
ﻭَﺳَﻠَّﻢَ ﻏَﺰْﻭَﺓَ ﺍﻟْﻬِﻨْﺪِ ﻓَﺈِﻥْ ﺃَﺩْﺭَﻛْﺘُﻬَﺎ
ﺃُﻧْﻔِﻖْ ﻓِﻴْﻬَﺎ ﻧَﻔْﺴِﻰْ ﻭَﻣَﺎﻟِﻰْ ﻭَﺇِﻥْ
ﻗُﺘِﻠْﺖُ ﻛُﻨْﺖُ ﺃَﻓْﻀَﻞَ ﺍﻟﺸُّﻬَﺪَﺍﺀِ ﻭَﺇِﻥْ
ﺭَﺟَﻌْﺖُ ﻓَﺄَﻧَﺎ ﺣَﻀْﺮَﺕْ ﺃَﺑُﻮْ ﻫُﺮَﻳْﺮَﺓَ
ﺭَﺿِﻰَ ﺍﻟﻠﻪُ ﺗَﻌَﺎﻟٰﯽ ﻋَﻨْﻪُ ﺍﻟْﻤُﺤَﺮَّﺭُ .
অর্থ: বিশিষ্ট ছাহাবী হযরত আবূ হুরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু
বলেন, হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি আমাদের থেকে হিন্দুস্তান তথা ভারতের জিহাদ সম্পর্কে ওয়াদা তথা প্রতিশ্রুতি গ্রহণ করেন। যদি আমি সেই সম্মানিত জিহাদ পাই তাহলে আমি সেই সম্মানিত জিহাদ -এ আমার পবিত্র জান বিলিয়ে দিবো এবং আমার মাল-সম্পদ ব্যয় করবো। আর আমি যদি সেই সম্মানিত জিহাদ মুবারক-এ উপস্থিত হয়ে শাহাদাত গ্রহণ করি তাহলে আমি হবো সর্বশ্রেষ্ঠ শহীদ। আর আমি যদি সম্মানিত জিহাদ থেকে ফিরে আসি (বিজয়ী বেশে) তাহলে আমি হযরত আবূ হুরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্ত।”
সুবহানাল্লাহ!

দলীল-
√ নাসাঈ শরীফ
√ সুনানে সাঈদ ইবনে মানছূর ২/১৪৫,
√ মুসনাদে বাযযার ১৫/৩০২

উপরোক্ত হাদীছ শরীফদ্বয় থেকে হিন্দুস্তান তথা ভারতের সম্মানিত
জিহাদের গুরুত্ব, তাৎপর্য, ফাযায়িল, ফযীলত, বুযুর্গী-সম্মান স্পষ্টভাবে ফুটে উঠেছে। এই জিহাদের এতোই গুরুত্ব, তাৎপর্য, ফাযায়িল, ফযীলত যে, স্বয়ং হুযূর পাক ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তিনি হযরত ছাহাবায়ে কিরাম রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম থেকে এই জিহাদের ব্যাপারে প্রতিশ্রুতি গ্রহণ করেছেন। সুবহানাল্লাহ!

হিন্দুস্তান তথা ভারতের মুশরিকদের সাথে যেই জিহাদ হবে সেই সম্মানিত জিহাদ -এ যাঁরা শহীদ হবেন তাঁরা হবেন সর্বশ্রেষ্ঠ শহীদ। সুবহানাল্লাহ!

সুতরাং এই সম্মানিত জিহাদ -এ অবশ্যই মুসলমানগম মহাবিজয় অর্জন করবেন। সুবহানাল্লাহ!

আর যাঁরা বিজয়ী বেশে এই সম্মানিত জিহাদ থেকে প্রত্যাবর্তন করবেন তাদেরকে মহান আল্লাহ পাক তিনি জাহান্নামের আগুন থেকে মুক্ত করবেন। অর্থাৎ তাহারা সুনিশ্চিত জান্নাতী হবেন।
সুবহানাল্লাহ!

এই সম্মানিত জিহাদ-এ মুসলমানগন যে মহাবিজয় অর্জন করবেন সেটা হযরত আবূ হুরায়রা রদ্বিয়াল্লাহু তায়ালা আনহু বর্ণিত হাদীছ শরীফ থেকেই স্পষ্টভাবে প্রমাণিত। সুবহানাল্লাহ!

অর্থাৎ আবার ইসলামী হুকুমত কায়েম হবে। মুসলমানগন আবার নিজেদের অধিকার ফিরে পাবে। বিধর্মীদের মূলৎপাটন হবে।
সুবহানাল্লাহ্

Advertisements